সবার উপর মানুষ সত্য তাহার উপর নাই

এন আর এস মেডিকেল কলেজে নিওন্যাটোলজি ডিপার্টমেন্টে ভর্তি নদীয়ার মাঝদিয়ার বাসিন্দা মৌমিতা বিশ্বাসের দুদিনের সদ্যজাত সন্তান, এখানেই তার জন্ম। রক্তের গ্রুপ ও নেগেটিভ। শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আশু একই ব্লাড গ্রুপের রক্ত প্রয়োজন হয়ে পড়ে৷

খুঁজতে খুঁজতে পাওয়া যায় রিপণ স্ট্রীটের এক তরুণ মিসবাহ আহমেদকে। কিন্তু রমজান মাস হওয়ায় মিসবাহ তখন রোজা রাখছিলেন। খবর পেয়েই নিমেষের মধ্যে রোজা ভেঙে ছুটলেন এন আর এস ব্লাড ব্যাঙ্ক। বাঁচানো সম্ভব হলো একটি প্রাণ। আবারও প্রমাণিত মানব ধর্মই সবার ওপরে। রিয়েল হিরো মিসবাহ’র সাথেই আলাপচারিতায় সপ্তর্ষি বৈশ্য।

  • মিসবাহ, আমরা জানি আজ আপনি কীভাবে রক্ত দিয়েছেন, সে কথায় আসব, তার আগে আপনার নিজের ব্যাপারে কিছু বলুন।

মিসবাহ

-১৯৯৬ সালে আমার জন্ম রিপন স্ট্রীটের এক মধ্যবিত্ত পরিবারে। আমি ছোট থেকেই এখানে বড় হয়েছি। ইন্ট্রোভার্ট হওয়ায় খুব একটা বেশি ফ্রেন্ড সার্কেল নেই। বাড়িতে আমরা ছয় ভাই বোন একসাথে বড় হয়েছি। মা হাউজ ওয়াইফ, বাবার এখানেই কাঁচের দোকান রয়েছে। মোটামুটি মধ্যবিত্ত পরিবারেই আমি বেড়ে উঠেছি।

  • এমন ভাবে আপনার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর প্রবণতাও কি ছোটো থেকেই?

তা বলা যেতেই পারে। আসলে ছোটো থেকে বাবা আসফাক আহমেদকে দেখেছি নিজের আশে পাশের প্রত্যেকের দরকারে সাধ্যমতো পাশে দাঁড়াতে। সেই থেকেই আমিও সেই চেষ্টাই করি। একবার আমাদের রিপণ স্ট্রীটে প্রশান্ত মুখার্জি বলে একজনের রোড এক্সিডেন্ট হয়। আমি সাথে সাথে ট্যাক্সি ধরে ওনাকে নাইটিঙ্গল হস্পিটালে নিয়ে যাই, সেখানে দাঁড়িয়ে থেকে ভর্তি করে ওনার ট্রিটমেন্ট করাই।

  • মূলত কি করতে ভালো লাগে আপনার?

ছোটো থেকেই স্বভাবে বেশ Introvert আমি। তাই কখনোই তেমন ভীষণ কাছের বন্ধু বলতে কেউ ছিল না। বই পড়তেই ভালো লাগে। আমাকে কখনোই ভীষণ কাল্পনিক, larger than life কোনো গল্পের বইয় আমায় টানেনা, আমায় টানে সাধারণ মানুষের গল্প, সমাজের গল্প, any kind of realistic story.

  • কী ধরনের গান শোনা পছন্দের?

পছন্দের তালিকায় অনেকেই আছেন তবে বাংলা গান বললে আমার প্রিয় মান্না দে আর কবীর সুমন। কবীর সুমনের ‘আমি চাই সাঁওতাল তার ভাষায় বলবে রাষ্ট্রপুঞ্জে’ শুধু গান নয় আমার কাছে, স্টেটমেন্ট। আমি linguistic inequality র বিরুদ্ধে। আমি সব ভাষার সমান মর্যাদা হোক এটাই চাই, সব মানুষ সমান মর্যাদা পান এটাই চাই।

  • আজ কীভাবে যোগাযোগ হল এন আর এসে রক্ত দেওয়ার জন্য?

আমায় নন্দী (অভিষেক নন্দী) জানায় এন আর এসে একটা বাচ্চার জন্য ব্লাড দিতে হবে, ও নেগেটিভ। দুদিন বয়স, কোথাও রক্ত নেই, আমি শোনা মাত্র এক মিনিটে রাজী হয়ে যাই। কলা খেয়ে রোজা ভেঙে বাড়িতে না জানিয়েই বেরিয়ে পড়ি রক্ত দেওয়ার জন্য। রাস্তায় ফোন আসে আর এক দাদার, সে সবটা বুঝিয়ে দেয় এন আর এস ব্লাড ব্যাঙ্কে বলে রাখে, কন্ট্যাক্ট হয় পেশেন্টের বাবা মৃত্যুঞ্জয় দার সাথেও। তিনি রিকুইজিশন আর ব্লাড স্যাম্পল আনলে আমি ব্লাড ব্যাঙ্কে যাই, মেডিকেল চেক আপ হয়, তারপর রক্ত দিই।

  • এই যে রোজা ভেঙে রক্ত দিলেন, একজন ধার্মিক মুসলমান বলেই রোজা রাখছেন, তাও তা ভেঙে রক্ত দিলেন। এর পেছনে কী মানসিকতা কাজ করল যে আপনি রোজা ভাঙলেন?

আমি বিশ্বাস করি জীবন সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। আগেও কিছু জনের জীবন বাঁচিয়েছি। জীবনের থেকে বেশি গুরুত্ব আমার কাছে আর কিছুরই না। ধর্ম কি, কেন প্রয়োজন এসব গভীর তত্ত্বকথা আমি বুঝি না। আমার সাধারণ বোধ থেকে আমি জানি, মানবিকতার থেকে বড় ধর্ম নেই। সুমনের ওই গানটাতেই একটা লাইন আছেনা “আমি চাই ধর্ম বলতে মানুষ বুঝবে মানুষ শুধু”।

রক্তদানের সময়
  • একটা জীবন আজ বাঁচলো আপনার জন্য, কেমন লাগছে?

সত্যি বলতে এটা প্রথম নয়। এর আগেও ওই অভিজ্ঞতা হয়েছে আমার। প্রশান্ত মুখার্জির কথা আগেই বললাম। আবার মনে পড়ল সল্টলেকে এক মহিলা দুর্ঘটনায় আক্রান্ত হন, ওনার নাম মনে নেই ওনার হাজবেন্ডের নাম গোপাল মুখার্জি। পুলিশ তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে চিত্তরঞ্জনে রেখে দিয়েছিলেন। তখনও সেখানে তার কোনো বাড়ির লোক পৌঁছায়নি। কিন্তু আমি ভদ্রমহিলার মাথার বিপজ্জনক আঘাত দেখে আর নিজেকে সামলাতে পারলাম না। সাথে সাথে নিজের দায়িত্বে ওনাকে ভর্তি করি হাসপাতালে। তিনিও প্রাণে বাঁচেন।

  • বুঝেছি এই অভিজ্ঞতা আপনার নতুন নয়। তবু আজ এই ছোটো বাচ্চাটির জীবন বাঁচাতে পেরে কেমন লাগছে?

আমি বাচ্চাটির ছবি দেখলাম। আজ সত্যিই বেশ ভালো লাগছে৷ আমি শুধু এটাই চাই, যেখানে যখন অনুভব করি কারুর আমার সাহায্য প্রয়োজন আমি সব টুকু দিয়ে তার পাশেই দাঁড়াবো। আবার কখনও দরকার হলে আবার যাব।

(এরপর ছ’টা বেজে যাওয়ায় নামাজ পড়তে গেলেন মিসবাহ আহমেদ।)

 

হককথার পক্ষ থেকে সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন সপ্তর্ষি বৈশ্য।

অনুলিখনে সপ্তর্ষি বৈশ্য ও অঙ্কিতা ভট্টাচার্য।

2 COMMENTS

  1. রক্ত দিলে রোজা ভেঙে যায়,এটা নিয়ম কোথায় পেলেন ?
    সূক্ষ্ম ভাবে humanism দর্শন প্রচার না করলেও পারেন।

    • ইসলাম নিয়ে পোস্ট করার আগে , পড়াশুনা করা উচিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here